KOLKATA WEATHER
এক ঝলকেকলকাতাদক্ষিণবঙ্গ

অঝোর বৃষ্টির মধ্যে কাকভেজা হয়ে নাকা চেকিংএ রাজারহাট ট্রাফিক গার্ড।

নিজস্ব প্রতিনিধি,বিধান নগর : আজ সকাল থেকেই শহরজুড়ে অবিশ্রাম বৃষ্টি ধারার মধ্যেই পালিত হচ্ছে সাপ্তাহিক লকডাউন। চিনার পার্ক থেকে বাঁদিকে রাজারহাট মেন রোড ধরে প্রায় ৫ কিলোমিটার এগিয়ে গেলেই রাজারহাট চৌঁমাথা।একদিকে পাথরঘাটা, আরেক দিকে ভাঙরমুখী রাস্তা। বিধাননগর কমিশনারেটের আয়ত্তাধীন এই অঞ্চল অবস্থানগত দিক থেকে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। নিউটাউনের অন্তর্ভুক্ত হলেও লকডাউনের দিনগুলিতে বিধাননগর কমিশনারেটের তরফে পদস্থ আধিকারিকদের যাতায়াত খুব একটা প্রতক্ষ্য করা যায় না এই অঞ্চলে। লকডাউনের দিনগুলিতে রাজারহাট থানা ও রাজারহাট ট্রাফিক গার্ডের তরফে এখানে নিয়মিতভাবে কঠোর ব্যাবস্থাপনা প্রতক্ষ্য করা গেছে। লকডাউন ভেঙে গ্রেপ্তারের হারও খুব বেশি ছিল এই অঞ্চলেই । জগারডাঁগা দশদ্রোন, সলুয়া, রেকজোয়ানি, বিস্নুপুর, বটতলা,লাউহাটি ও বিভিন্ন অঞ্চলের প্রতিটি পাড়ায় পাড়ায় নজরদারি চালান রাজারহাট থানার ভারপ্রাপ্ত আধিকারিক মানস কুমার মাইতি।

আরও পড়ুন : চাকরি দেওয়ার নামে ফের কোটি কোটি টাকার প্রতারণা

প্রতিটি রাস্তার মোড়ে কঠোর নজরদারি বজায় রাখেন রাজারহাট ট্রাফিক গার্ডের ভারপ্রাপ্ত আধিকারিক সাব্বির আব্বাস। আজ লকডাউনে এই অঞ্চলে প্রবল বৃষ্টির মধ্যেও কিন্তু ছাতা মাথায় দিয়েও রীতিমতো দাপিয়ে লকডাউন পালন করালো পুলিস। রাজারহাট মেন রোডের ওপর ট্রাফিক গার্ডের ভারপ্রাপ্ত আধিকারিক সাব্বির আব্বাসকে নিজহাতে গাড়ি চালিয়ে নজরদারি চালাতে দেখা যায় । রীতিমতো বৃষ্টিতে কাকভেজা হয়েও নাকা চেকিংএ বিন্দুমাত্র ঢিল দেয়নি রাজারহাট ট্রাফিক গার্ডের পুলিস কর্মীরা । যদিও অন্যান্য লকডাউনের তুলনায় আজ সকাল থেকে গ্রেফতারের সংখ্যা অবশ্য একটু কম। প্রসংগত, কমিশনারেটের তরফে সামান্য অবহেলিত এই রাজারহাট চৌমাথাঁয় ট্রাফিক গার্ডের ভারপ্রাপ্ত আধিকারিক সাব্বির আব্বাসের একান্ত প্রচেষ্টায় তৈরী হচ্ছে এই অঞ্চলের প্রথম অত্যাধুনিক অট্যোমেটিক সিগন্যালিং সিস্টেমযুক্ত নতুন ট্রাফিক বুথ। রাজারহাট অঞ্চল ছাড়াও আজ এই প্রবল বৃষ্টির মধ্যেই, কলকাতা এয়ারপোর্ট থেকে কলকাতামুখি ভিআইপি রোডের ওপরেও এয়ারপোর্ট ট্রাফিক গার্ড, বাগুইহাটি ট্রাফিক গার্ড ও লেকটাউন ট্রাফিক গার্ডের তরফে কড়া নাকা চেকিং প্রত্যক্ষ করা গেছে।

মোবাইলে খবরের নোটিফিকেশন পেতে এখানে ক্লিক করুন - Whatsapp , Facebook Group

আমাদের খবর পাঠাতে এখানে ক্লিক করুন - Whatsapp
Close
Close