KOLKATA WEATHER
পুলিশের ডাইরি

পুলিশের ডাইরি

এখন বিশেষ কাজে পুরুলিয়ায় । যেখানে আছি সেখান থেকে সবচেয়ে নিকটবর্তী চায়ের দোকানটাও চার কিলোমিটার দূরে । চারপাশে গভীর না হলেও বেশ গা ছম ছম করা মনোরম জঙ্গল বিছিয়ে আছে । জানা অজানা গাছের জঙ্গলের মধ্যে দিয়েই পায়ে চলার পথ । প্রকৃতি এখানে কোথাও সুন্দর কোথাও সুন্দরতর ! কখনো হাঁটতে হাঁটতে কখনো একটু থেমে দুচোখ ভরে দেখার ইচ্ছা মানুষকে বঞ্চিত করে না । দূরে অদূরে বড়ো টিলা ছোটো পাহাড় মাথায় পেঁজা তুলার বোঝা নিয়ে অনন্ত প্রতিক্ষায় তার প্রিয় দূরাগত দর্শকদের জন্য ! সেই পাহাড়ের নীচে উপরে আদিবাসী গ্রাম, বড়ো গরীব অথচ অত্যন্ত সরল তাদের মানসিকতা আপামর দূরাগতদের হৃদয় আকর্ষন করবেই করবে । ওদের সাথে কথা বলার আনন্দই আলাদা । স্থানীয় গ্রাম্য ভাষাটি এতো মিষ্টি আর শ্রুতিমধুর যে একে উপেক্ষা করে যাওয়া একরকম অসম্ভব ! কিন্তু এতো সৌন্দর্য্য নিয়ে যে প্রকৃতি সদা বিরাজমান তারই অন্তরালে থাকা চরম মৃত্যুভয় একসময় শিরদাঁড়ায় হিমেল স্রোত বইয়ে দিতো । সেই বাঘমুন্ডা, আরুসি, অযোধ্যা পাহাড় , পাথরঘাটা, বলরামপুর আজও আছে । তবে আগের মতো নয় । তবুও অভিজ্ঞতা শিখিয়ে দিয়েছে ওইসব জায়গায় সৌন্দর্য্য উপভোগ করার কায়দা । আর স্থির থাকা যায় না, মোহিত হতে গেলেও হিতবোধশূন্য হওয়া যায় না, ওই শান্ত নরম মুখগুলোর মধ্যেও দুচোখ সতর্ক দৃষ্টিকে খোঁজে জিঘাংসার ছাপ…………. ! তবু মন চায় আনন্দ উচ্ছ্বাস আর প্রাণবন্ত জীবন । তাই উপেক্ষা করেও বিপদ মৃত্যুভয় মানুষ এগিয়ে যায় এগিয়ে যায় এগিয়ে যায় ।

( লেখক: তাপস দাস , আই সি, পশ্চিমবঙ্গ পুলিশ)

মোবাইলে খবরের নোটিফিকেশন পেতে এখানে ক্লিক করুন - Whatsapp , Facebook Group

আমাদের খবর পাঠাতে এখানে ক্লিক করুন - Whatsapp
Close
Close