KOLKATA WEATHER
দক্ষিণবঙ্গহুগলি

অস্থায়ী শ্মশান তৈরিতে গ্রাম বাসিদের বাঁধা , অবরোধ , পুলিশের গাড়ি ভাংচুর , আটক ১২

নিজস্ব প্রতিনিধি:- অনল ভট্টাচার্য:- হুগলী :- আরামবাগ থানার অন্তর্গত পল্লীশ্রী ব্রিজের নিচে শ্মশান তৈরিতে বাধা| ক্ষুব্দ গ্রামবাসীরা| মঙ্গলবার সকালে চলে বিক্ষোভ পথ অবরোধ| এমনকি ভাঙচুর করা হয় পুলিশের গাড়ি| আটক 12 জন গ্রামবাসী| পুলিশ সূত্রে খবর অনুযায়ী, মঙ্গলবার সকালে অস্থায়ী শ্মশান তৈরীর উদ্দেশ্যে তারকেশ্বর নদীর নিচে গর্ত খোড়া হচ্ছিল প্রশাসনের পক্ষ থেকে। সূত্রের খবর অনুযায়ী, করোনা আক্রান্ত শবদাহ করা হবে এই অস্থায়ী শ্মশানে| আর এই খবর ছড়িয়ে পড়ে দ্রুত আশেপাশের গ্রামের মধ্যে | গ্রামবাসীরা ঘটনাস্থলে হাজির হয়ে মাটি খুরতে বাঁধা দেয় প্রশাসনকে। এই নদীর জলেই আমাদের চাষবাস ছাড়াও কাপড় কাচা, স্নান করতে হয়|।ফলে করোনা আক্রান্ত মৃতদেহগুলি এখানে পোড়ানো হলে তার কাঠকয়লা, জামা,কাপড় তা সবই এই নদীর জলে পড়বে| তাহলে নদীর জল দূষিত হওয়ার সম্ভাবনা আছে| এমনকি এই জল ব্যবহার করলে গ্রামবাসীদের করোনা আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে| এমনকি পোড়ানার সময় দুর্গন্ধ ছড়াবে।তাদের দাবি,ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিক্ষুব্ধ স্থানীয় বাসিন্দারা বিক্ষোভ দেখান। উত্তেজনা সৃষ্টি হয় গ্রামবাসীদের মধ্যে| খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যান বিশাল পুলিশবাহিনী ও প্রশাসনের কর্তারা| পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।

আরো পড়ুন: বিমানবন্দর থানার বিশেষ সচেতনতা অভিযান

অতঃপর হঠাৎ করেই কিছু সময় পর পুলিশের সঙ্গে খণ্ডযুদ্ধ বাঁধে| পুলিশের গাড়ি আটকে বিক্ষোভ দেখাতে থাকে গ্রামবাসীরা। ভাংচুর করা হয় পুলিশের গাড়ি বলে অভিযোগ। তারকেশ্বর রোডের পল্লীশ্রী মোড়ে স্থানীয় বাসিন্দারা কয়েক ঘন্টা ধরে পথ অবরোধ করে রাখে।পুলিশ অশান্তি এড়াতে কোনরকম গুলি চালানো বা লাঠি চার্জ করেনি| আরামবাগ পুলিশ তারপরে খুব ঠান্ডা মাথায় দক্ষতার সঙ্গে বিক্ষুব্ধ জনতার ক্ষোভ প্রশমন করতে সমর্থ হয়|তবে এই ঘটনায় ১১মহিলা সহ মোট বারোজনকে আটক করে আরামবাগ থানার পুলিশ।

মোবাইলে খবরের নোটিফিকেশন পেতে এখানে ক্লিক করুন - Whatsapp , Facebook Group

আমাদের খবর পাঠাতে এখানে ক্লিক করুন - Whatsapp
Close
Close