KOLKATA WEATHER
এক ঝলকেকলকাতাদক্ষিণবঙ্গ

এক মানবিক পুলিশ কর্মীর গল্প – বাপন দাস

নিজস্ব সংবাদদাতা,পলাশ নস্কর: “বিনে পয়সায় মাস্ক,স্যানিটাইজার ও সাবান”। সৌজন্যে বাপন দাস(কলকাতা পুলিশের বিশেষ শাখার কর্মী) লেখা প্ল্যাকার্ড -এই দৃশ্য এখন খুব চেনা বিভিন্ন হাসপাতালের সামনে। মানবিকতার এক উজ্জ্বল উদাহরণ পুলিশকর্মী বাপন দাস। বাইকে করে বিভিন্ন হাসপাতালের সামনে গিয়ে মাস্ক-স্যানিটাইজার ও সাবান, সাবান বিলি করেন তিনি বিনা পয়সায়।

আরও পড়ুন : বড়োসড়ো পাচারচক্রের পর্দা ফাঁস পুলিশের, স্ট্র্যান্ড রোডে উদ্ধার ২১ জন নাবালক

করোনা আবহে সবথেকে কাছের মানুষ ডাক্তার এবং পুলিশ। তেমনি একজন পুলিশকর্মী তাঁর ব্যস্ত সময়ের মধ্যে এমনই জনসেবামূলক কাজ করে চলেছেন। বাপন দাস, কলকাতা পুলিশের বিশেষ শাখার কর্মী বর্তমানে করোনা আবহে মানবতার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত রেখেছেন।বাইকে কলকাতার বিভিন্ন সরকারি হাসপাতাল থেকে শুরু সুদূর উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন সরকারি হাসপাতালের সামনে ছুটে যান রোগীর পরিবারের হাতে বিনামূল্যে মাস্ক, স্যানিটাইজার এবং সাবান তুলে দিতে। সোমবার তাঁকে দেখা গেল আর জি কর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের গেটে এবং প্রসূতি বিভাগের সামনে হাতে মাক্স স্যানিটাইজার ও সাবান নিয়ে। এর আগেও বাপন বাবুকে কখনও কলকাতার এসএসকেএম হাসপাতালে, আবার কখনও কলকাতা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে, আবার উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ, শিলিগুড়ি জেলা হাসপাতাল এবং ইসলামপুর মহকুমা হাসপাতালের সামনে দেখা গেছে। এভাবেই নিজের বাইকে নিয়ে লেখা প্ল্যাকার্ড গলায় ঝুলিয়ে রোগীর পরিবারের লোকজনদের মাক্স, স্যানিটাইজার ও সাবান বিতরণ করেন তিনি।

বাপন দাস বলেন,” মাসে এক হাজার মানুষ কে সাহায্য করবো বিভিন্ন মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতাল গিয়ে বিনে পয়সায় এসব দিয়ে। করোনা যুদ্ধে জয়ী হতেই হবে আমাদের।” আজ রোগীর পরিবারের লোকজনেরা বিনে পয়সায় এসব পেয়ে ভীষন খুশি। পুলিশ কর্মীর এই কাজকে সকলেই সাধুবাদ জানিয়েছেন।

 

মোবাইলে খবরের নোটিফিকেশন পেতে এখানে ক্লিক করুন - Whatsapp , Facebook Group

আমাদের খবর পাঠাতে এখানে ক্লিক করুন - Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close
Close